আল্লাহ সম্পর্কে আকিদা কেমন হবে ?

0
57
views

আল্লাহ তায়ালার কী সৃষ্টির মত আকৃতি রয়েছে? আল্লাহ আকার আকৃতি হতে মুক্ত-এটাই আহলে সুন্নাহ ওয়াল জামাতের আক্বিদা, কেননা আকার আকৃতি থাকলে কেমন তার অবকাশ রাখে । মানুষ বা সৃষ্টি শুনতে কান, দেখতে চোখের প্রয়োজন পড়ে, কিন্তু স্রষ্টার জন্য মানুষের বা সৃষ্টির মত কোন কিছুই প্রয়োজন পড়ে না। স্রষ্টাকে সৃষ্টির সাথে তুলনা দেয়া কুফুরী । 👉 ইমাম তাহাভী রহমাতুল্লাহি আলাই বলেন, وَمَنْ وَصَفَ اللَّهَ بِمَعْنًى مِنْ مَعَانِي الْبَشَرِ فَقَدْ كُفر -“যে ব্যক্তি আল্লাহ তা’য়ালাকে মানবীয় গুণাবলী হতে কোন গুণের দ্বারা গুণান্বিত করবে সে কাফির ।” ৫৩ 👉 ইমাম আবু হানিফা রাদিআল্লাহু তাআ’লা আনহু বলেন, لَا يشبه شَيْئا من الْأَشْيَاء من خلقه وَلَا يُشبههُ شَيْء مِنْ خلقه- -“আল্লাহ তায়ালা তাঁর সৃষ্টির কোন বস্তুর মত নন, এমনকি তিনি কোনো সৃষ্টির মত নন।” ৫৪ 👉 ইমাম কুরতুবী রহমাতুল্লাহি আলাই বলেন, لَا يُشْبِهُ شَيْئًا مِنْ مَخْلُوقَاتِهِ وَلَا يُشْبَّهُ بِهِ -“সৃষ্টির কিছুই আল্লাহর সাথে সাদৃশ্য নেই, এবং তিনিও কারও সদৃশ নন।” ৫৫ মিরাজে আল্লাহকে নবিজি দেখেছেন-তা সত্য; কিন্তু তিনি কোন আকৃতির কথা বর্ণনা করেননি। 👉 হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিআল্লাহু তাআ’লা আনহু বলেন, رَأَيْت رَبِّي عَزَّوَجَلَّ لَيْسَ كَمِثْلِهِ شَيْءٌ রাসূলে আকরাম (ﷺ) ইরশাদ করেন, -“আমি আমার রব আল্লাহ তা’য়ালাকে দেখেছি, তবে তার সাথে (সৃষ্টি) কোন সদৃশ্য বা তুলনা নেই।”৫৬ 👉 মহান রব তা’য়ালা ইরশাদ করেন, لَيْسَ كَمِثْلِهِ شَيْءٌ “তার কোন দৃষ্টান্ত তথা উপমা নেই।”৫৭ 👉 ইমাম বায়হাক্বী রহমাতুল্লাহি আলাই বলেন, فَإِنَّ الَّذِي يَجِبُ عَلَيْنَا وَعَلَى كُلِّ مُسْلِمٍ أَنْ يَعْلَمَهُ: أَنَّ رَبَّنَا لَيْسَ بِذِي صُورَةٍ وَلَا هَيْئَةٍ، فَإِنَّ الصُّورَةَ تَقْتَضِي الْكَيْفِيَّةَ وَهِيَ عَنِ اللَّهِ وَعَنْ صِفَاتِهِ مَنْفِيَّةٌ -“নিশ্চয় আমাদের ও সকল মুসলমানের জানা অত্যাবশ্যক যে, আমাদের প্রভু আকৃতি ও অবয়ব বিশিষ্ট নহেন। কেননা, আকৃতি তথা কেমন’ এর চাহিদা রাখে । অথচ কেমন প্রশ্নটি আল্লাহ ও তাঁর গুণবলীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।” ৫৮ ””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””” ৫৩. তাহবী, আকিদাতুত তাহাভী, ৪১ পৃ, আকিদা নং ৩৪, মাকতুবাতুল ইসলামী, বয়রুত, লেবানন, প্রকাশ, ১৪১৪হি ৫৪. ইমাম আবু হানিফা, আল-ফিকহুল আকবার, ১৪ পৃ. ৫৫. ইমাম কুরতুবী, তাফসীরে কুরতুবী, ১৬৮পৃ. মাকতুবাতুল মিসরিয়্যাহ, কাহেরা, মিশর, প্রকাশ, ১৩৮৪হি.। ৫৬. দায়লামী, আল-ফিরদাউস, ২/২৫৪পৃ. হাদিস ও ৩১৮৩ ৫৭. সুরা আশ-শুরা, আয়াত, ১১ ৫৮. ইমাম বায়হাকী, কিতাবুল আসমা ওয়াল সিফাত, ২/৬৬পৃ. হাদিস ও ৬৪১, মাকতুবাতুল সৌদিয়া, জেদ্দা, প্রথম প্রকাশ, ১৪১৩হি, ””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””” 👉 ইমাম বায়হাকী আরও বলেন, وَلَا يَجُوزُ أَنْ يَكُونَ الْبَارِي تَعَالَى مُصَوَّرًا وَلَا أَنْ يَكُونَ لَهُ صُورَةٌ، لِأَنَّ الصُّورَةَ مُخْتَلِفَةٌ “আল্লাহ তা’য়ালার জন্য আকৃতি আছে ধারণা করা বৈধ নয়, কেননা তার কোন আকৃতি নেই । আর তাঁর আকৃতি হলো স্বতন্ত্র ।” ৫৯ 👉 ইমাম কামালুদ্দীন ইবনুল হুমাম বলেন, فَلَيْسَ سبحانه بذى لون و لارائحة ولاصورة ولاشكل -“মহান আল্লাহ রং, গন্ধ, আকৃতি এবং অবয়ব বিশিষ্ট নন।” ৬০ 👉 ইমাম আবুল মানসুর মাতুরীদি বলেন, وليس بجسم، ولا شبه، ولا جثة، ولا صورة، ولا لحم، ولا دم، ولا شخص ولا جوهر ولا عرض،….. -“মহান আল্লাহ দেহ, কোনো সৃষ্টির সাদৃশ্য, দেহ বা শরীর, আকৃতি, মাংসবহুল, রং, বড় দেহ বিশিষ্ট, বস্তু/পদার্থ, প্রার্শ্ব, এমনকি নেই কোন সাদৃশ, আকৃতি গোস্ত, ……এগুলো থেকে পবিত্র ।” ৬১ 👉 ইমাম মাতুরীদি আরও বলেন, لا تشبه صفاته صفات المخلوقين، ولا اشتبهت صفات الخلق صفاته -“মহান আল্লাহর সিফাত বা গুণাবলীর মধ্যে তাঁর কোন সৃষ্টির গুণাবলীর সাদৃশ্য নেই।” ৬২ তাই বুঝা গেল আল্লাহকে কোন আকৃতি দ্বারা ব্যাখ্যা করলে, প্রশ্নের অবকাশ রাখে যে তাহলে তার আকৃতি কীসের মত তাই বলা যাবে না। এ বিষয়ে ইমাম বুখারীর উস্তাদ। 👉 ইমাম নুয়াইম বিন হাম্মাদ বলেন, قَالَ الْأَئِمَّةُ -مِنْهُمْ نُعَيْم بْنُ حَمَّادٍ الْخُزَاعِيُّ شَيْخُ الْبُخَارِيِّ -: مَنْ شَبَّهَ اللَّهَ بِخَلْقِهِ فَقَدْ كَفَرَ -“তিনি বলেন, যে মহান আল্লাহকে তার সৃষ্টির সাথে তুলনা/সাদৃশ্য করবে সে কাফির। ৬৩ পবিত্র কুরআনে কোন কোন স্থানে মহান রব তার যে অঙ্গ উল্লেখ করেছেন তা মূলত তার গুণাবলীকে বুঝানো হয়েছে; তাই তার সরাসরি অর্থ এখানে গ্রহণ করা হবে না। এ প্রসঙ্গে হাদিসের এবং আকায়েদের – 👉 অন্যতম ইমাম বায়হাকী বলেন, أَنْ تَكُونَ الصُّورَةُ بِمَعْنَى الصِّفَةِ- -“কোনো ক্ষেত্রে যদি আকৃতি প্রকাশের কথা আসে তা হবে তাঁর সিফাত বা গুণবলী।” ৬৪ ””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””” ৫৯. ইমাম বায়হাকী, কিতাবুল আসমা ওয়াল সিফাত, ২/৬০পৃ. মাকতুবাতুল সৌদিয়া, জেদ্দা, প্রথম প্রকাশ, ১৪১৩হি, ৬০. ইমাম কামালুদ্দীন ইবনুল হুমাম, আল-মুসাইরাত, ২১৮পৃ. ৬১. ইমাম মাতুরীদি, তাফসীরে মাতুরীদি, ১/১৩৫পু, ৬২. ইমাম মাতুরীদি, তাফসীরে মাতুরীদি, ৮/২৬৭পৃ. ৬৩. ইবনে কাসির, তাফসীরে ইবনে কাসির, ৩/৪ ২৭. ৬৪. ইমাম বায়হাকী, কিতাবুল আসমা ওয়াল সিফাত, ২/৬৬পূ, হাদিস : ৬৪১, মাকতুবাতুল সৌদিয়া, জেন্দা, প্রথম প্রকাশ, ১৪ ১৩হি, ””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””””” 👉 ইমাম ইবনে হাজার আসকালানী উল্লেখ করেন, أَنَّ الْمُرَادَ بِالصُّورَةِ الصِّفَةُ وَإِلَيْهِ مَيْلُ الْبَيْهَقِيّ -“(অনেকের মতে-উপযুক্ত হাদিসে) ‘আকার’ দ্বারা ‘সিফাত (গুণ)ই উদ্দেশ্য। এ মতের দিকেই ইমাম আবু বকর আল-বাইহাকী এর ঝোঁক রয়েছে।”৬৫ 👉 তিনি আরও উল্লেখ করেন, قَالَ الْقُرْطُبِيُّ الْمُرَادُ بِالصُّورَةِ الصِّفَةُ -“ইমাম কুরতবী বলেন, এখানে আল্লাহর আকৃতি বলতে গুণই বুঝানো হবে।”৬৬ 👉 ইমাম নববী ইমাম কাযি আয়ায এর বরাতে উল্লেখ করেন, لَا يَجُوزُ عَلَيْهِ سُبْحَانَهُ وَتَعَالَى التَّجَسُّمُ -“আল্লাহ তা’য়ালার জন্য দেহাবয়ব আছে ধারণা করা বৈধ নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here