এফ্রিল ফুল কি এবং কেন?

0
97
views

“এপ্রিল ফুল” কি এবং কেন?

ফুল (fool) একটি ইংরেজী শব্দ, যার অর্থ হচ্ছে বোকা। “এপ্রিল ফুলের” অর্থ ‘এপ্রিলের বোকা’। “এপ্রিল ফুল” একটি জঘণ্যতম ও ঘণ্য ইতিহাস। পর্তুগীজ রাণী ইসাবেলা এবং পার্শ্ববর্তী রাজা ফার্ডিনান্ডের নেতৃত্বে এক বিশাল বাহিনী নিয়ে চতুর্দিক থেকে ঘেরাও করে অত্যাচারের স্টিমরোলার চালায় স্পেনের মুসলমানদের উপর। দিশেহারা হয়ে যখন মুসলমানদের অবস্থা প্রকট রূপ ধারণ করলো, তখন ধূর্ত ফার্ডিন্যান্ড ঘোষণা দেয়, মুসলমানেরা অস্ত্র সমর্পণপূর্বক মসজিদসমূহে আশ্রয় নিলে তাদেরকে পূর্ণ নিরাপত্তা দেওয়া হবে এবং যারা সমুদ্রের জাহাজ সমূহে আশ্রয় নিবে তাদেরকে অন্যান্য মুসলিম দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। খ্রিস্টানদের প্রতারণা বুঝতে না পেরে সরলমনে মসজিদ এবং জাহাজসমূহে আশ্রয় নেয় মুসলমানেরা। তখনই জালিম, প্রতারক রাজা ফার্ডিন্যান্ডের নির্দেশে খ্রিস্টান সৈন্যরা মসজিদ সমূহে তালাবদ্ধ করে দিয়ে ভিতরে ও বাহিরে আগুন লাগিয়ে সেখানে আশ্রয় নেওয়া 30 লক্ষ মুসলমানদেরকে নির্মমভাবে শহীদ করে, এবং জাহাজগুলোতে আশ্রিত মুসলমানদেরকে গহীন সমুদ্রে ডুবিয়ে মারে। অসহায় নারী-পুরুষ ও শিশুদের আত্মচিৎকারে ঐদিন আকাশ-বাতাস ভারি হয়ে উটেছিল। মুসলমানদের দুর্দশা দেখে জালিম, নরচিপাশ, প্রতারক রাজা ফার্ডিন্যান্ডের তার স্ত্রী ইসাবেলাকে জড়িয়ে ধরে আনন্দ উল্লাসে বলে উঠে- Oh Muslim ! How fool you are. হাই মুসলমান ! তোমরা কত বোকা। সেদিনটি ছিল- 1492 সালের 1 লা এপ্রিল। সেই থেকে মুসলমানদেরকে উপহাস করার জন্য ক্রিস্টানেরা প্রতি বছর 1 লা এপ্রিল কে অত্যান্ত জাঁক-জমকের সাথে “এপ্রিল ফুল” হিসাবে পালন করে আসছে।
কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, আমরা এ সম্পর্কে না জানার কারণে এপ্রিল ফুল পালন করে থাকি।

তাই এই দিনটি পালন করা মানে নিজের অজান্তেই আমাদের মুসলমান ভাইদের অপমান করার সামীল । তাই আমাদের কে এই দিনটি পালন থেকে বিরত থাকতে হবে ।

তাছাড়া অনেকে এই দিনটিতে নানা মিথ্যা কথা বলে তার বন্ধু বান্ধবকে বোকা বানায় যা মূলত প্রতারনার সামিল । আসুন দেখি মিথ্যা কথা বলা সম্পর্কে ইসলাম কি বলে >>>

মহানবী সাল্লাল্লাহো আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন, মিথ্যা এবং বিশ্বাস ভঙ্গ ব্যতীত অন্য অনেক দুর্বলতাই মুমিন চরিত্রে থাকতে পারে। (আহমদ-বায়হাকি) অর্থাৎ মিথ্যাচার এবং বিশ্বাস ভঙ্গের স্বভাব ইমানের সম্পূর্ণ বিপরীত। ইমানের সঙ্গে এ দুটি বদভ্যাস একীভূত হওয়া অসম্ভব। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহো আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘মিথ্যা হলো সব কবিরা গুনাহের মা।’ কারণ একটি মিথ্যাকে ঢাকতে বা মিথ্যাকে বৈধ করার জন্য শত মিথ্যার আশ্রয় নিতে হয়। আল্লাহ তায়ালা মিথ্যাকে জুলুম বা অত্যাচার বলে আখ্যায়িত করেছেন। আল্লাহ পাক বলেন, ‘অতঃপর যারা আল্লাহর ওপর মিথ্যা আরোপ করেছে, তারা অত্যাচারী।’ তিনি আরো বলেন, ‘মিথ্যা তারাই বলে, যারা আল্লাহর আয়াতে ইমান রাখে না।’ (সুরা-নাহল, আয়াত-১০৫)

সুতরাং এ দিক থেকেও মিথ্যা কথা বলে কোন মানুষকে বোকা বানানো ইসলাম সমর্থন করেনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here