বিষয়-ইয়াওমে শাক ” يوم شك” (সন্দেহর ) দিনে রোজা রাখার হুকুম।

0
25
views

🌹ইয়াওমে শাক ” يوم شك” (সন্দেহর ) দিনে রোজা রাখার হুকুম।🌹

সর্বপ্রথম এটিজানা জরুরী যে ফরজ ইবাদত ইয়াকিনী ও অকাট্য প্রমাণের ভিত্তিতে সাব্যস্ত হয় , সন্দেহ ও সম্ভাবনার মাধ্যমে নয়।

=>দলিল নং-1
সুতরাং হাদীস শরীফের মধ্যে বর্ণিত হয়েছে-

عَنْ صِلَةَ بْنِ زُفَرَ، قَالَ كُنَّا عِنْدَ عَمَّارِ بْنِ يَاسِرٍ فَأُتِيَ بِشَاةٍ مَصْلِيَّةٍ فَقَالَ كُلُوا ‏.‏ فَتَنَحَّى بَعْضُ الْقَوْمِ فَقَالَ إِنِّي صَائِمٌ ‏.‏ فَقَالَ عَمَّارٌ مَنْ صَامَ الْيَوْمَ الَّذِي يَشُكُّ فِيهِ النَّاسُ فَقَدْ عَصَى أَبَا الْقَاسِمِ صلى الله عليه وسلم ‏.‏

সিলা ইবনু যুফার (رضي الله عنه) থেকে বর্ণিতঃ:
তিনি বলেন, আম্মার ইবনু ইয়াসির (رضي الله عنه)-এর নিকটে আমরা উপস্থিত ছিলাম। একটি ভুনা বক্‌রী (খাবারের উদ্দেশ্যে) নিয়ে আসা হলে তিনি বললেন, তোমরা সকলেই খাও। কিন্তু কিছু লোক দূরে সরে গিয়ে বললেন আমরা রোযাদার। আম্মার (رضي الله عنه) বললেন, সন্দেহযুক্ত দিনে যে ব্যক্তি রোযা পালন করে সে ব্যক্তি আবুল কাসিম (রাসুলুল্লাহ ﷺ) এর নাফারমানী করে।

জামে’ আত-তিরমিজি, হাদিস নং (৬৮৬)
সুনানে ইবনু মা-জাহ , হাদিস নং (১৬৪৫)

এই হাদীসের নিচে ইমাম তিরমিজি বলেন-

বর্ণিত এই হাদীসটি হাসান সহীহ্‌ । এই হাদীস অনুযায়ী রাসূলুল্লাহ(ﷺ)-এর বিশেষজ্ঞ সাহাবী ও তাবিঈদের মধ্যে বেশিরভাগই আমল করেছেন। সুফিয়ান সাওরী, মালিক ইবনু আনাস, আবদুল্লাহ ইবনুল মুবারাক, শাফিঈ, আহ্‌মাদ ও ইসহাক (رضيالله عنهم)-এর এরকমই অভিমত। সন্দেহের দিনে রোযা পালন করাকে তারা মাকরূহ বলেছেন। যদি কেউ সন্দেহর দিনে(৩০ ই- শাবান) রোযা পালন করে আর পরে প্রমাণিত হয় যে সেটি রমজানের প্রথম তারিখ ছিল, তথাপিও সে ব্যক্তিকে একটি কাযা রোযা পালন করতে হবে।

=>দলিল নং-2

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، أَنَّهُ كَانَ يَقُولُ: «أَلَا لَا تَقَدَّمُوا الشَّهْرَ بِيَوْمٍ أَوِ اثْنَيْنِ، إِلَّا رَجُلٌ كَانَ يَصُومُ صِيَامًا فَلْيَصُمْهُ»

হযরত আবূ হুরায়রা (رضي الله عنه) বলেন ,
রাসুলুল্লাহ্‌ (ﷺ) থেকে বর্ণিত যে, তিনি বলতেনঃ খবরদার! তোমরা রমযান মাসের এক অথবা দুই দিন পূর্বে সাওম (রোযা) পালন করবে না। হ্যাঁ, ঐ ব্যক্তি যে নিয়মিত সাওম (রোযা) পালন করে, সে ব্যক্তি ঐদিনও সাওম (রোযা) পালন করতে পারে। (কেননা তার রোযা রাখাই কোন সন্দেহ থাকবে না)
সুনানে আন-নাসায়ী, হাদিস নং ২১৯০

এই হাদীসের ভিত্তিতে এটি প্রমাণিত হয় যে, সন্দেহর দিন ( ৩০ ই- শাবান)রোজা রাখা নিষেধ।(এই নিয়াতে যে , যদি এটি রমজানের প্রথম তারিখ হয় তাহলে রমজানের ফরজ রোজা , আর যদি সাবান এর 30 তারিখ হয় তাহলে নফল রোজা।) কেননা ফরজ ইবাদত ইয়াকিনের সঙ্গে অকাট্য দলিলের ভিত্তিতে হতে হবে সন্দেহর মাধ্যমে নয়।
=>দলিল নং-3
রমজানের শারয়ী প্রমাণ ছাড়া ইয়াওমে শাক “يوم شك” (সন্দেহর দিন , ৩০ ই- শাবান)এর দিনে রমজানের নিয়তে রোজা রাখা মাকরুহ তাহরীমী।
যেমন- দুররে মুখতার মা’আ রাদ্দুল মুহতার এর মধ্যে বর্ণিত হয়েছে-
“ولو جزم أن يكون عن رمضان كره تحريما”

যদি কেউ সন্দেহর দিনে ইয়াকিনী রমজান হওয়ার নিয়তে রোজা রাখে তাহলে এটি মাকরূহ তাহরীমী হবে।
( দুররে মুখতার মা’আ রাদ্দুল মুহতার- খন্ড 3 -পৃষ্ঠা 310)

সুতরাং 30-ই শাবান সাবান নফলের নিয়তে হোক বা নফল-ফরজ উভয় নিয়তে হক রোজা রাখা নাজায়েজ ও মাকরুহ তাহরীমী।
🌹 দোয়া পার্থী 🌹
মৌ: মোঃ আব্দুল কাইউম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here