বিষয়-ইসলামের দৃষ্টিতে কাঁসা ও পিতলের তৈরি থালা-বাসনে পানাহার করার বিধান কি?

0
4
views

ইসলামের দৃষ্টিতে কাঁসা ও পিতলের তৈরি থালা-বাসনে পানাহার করার বিধান কি?

কাঁসা হল, রাং/টিন/Tin এবং তামা/Copper এর সংমিশ্রণে তৈরি ধাতু।
আর পিতল হল, (দস্তা/Zinc ও তামা/Copper) এর সংমিশ্রণে তৈরি ধাতু।

কাঁসা কিংবা পিতল দ্বারা তৈরি পাত্রটি যদি নাপাকি মুক্ত ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন হয় তাহলে তাতে হালাল খাদ্য-পানীয় গ্রহণ করতে কোন আপত্তি নাই। কেননা হাদিসে কেবল সোনা ও রূপার তৈরি পাত্রে পানাহার করতে নিষেধ করা হয়েছে; অন্য কোন পাত্রের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা আসে নি।
যেমন: হাদিসে বর্ণিত হয়েছে, হুযাইফা রা. থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন:

لَا تَشْرَبُوْا فِيْ آنِيَةِ الذَّهَبِ وَالْفِضَّةِ، وَلَا تَأْكُلُوْا فِيْ صِحَافِهَا فَإِنَّهَا لَهُمْ فِيْ الدُّنْيَا، وَلَنَا فِيْ الْآخِرَةِ.

‘‘তোমরা সোনা ও রূপার পেয়ালায় পান করো না এবং এ সেগুলোর প্লেটে খেও না। কারণ, সেগুলো দুনিয়ায় কাফিরদের জন্য এবং আখিরাতে আমাদের জন্য’’। (বুখারি ৫৪২৬, মুসলিম ২০৬৭)

পিতল দিয়ে বিভিন্ন ধর্মাবলম্বীরা উপাসনার জন্য মূর্তি বানিয়ে থাকে তাই অনেকের মনে এ ধারণার সৃষ্টি হয়েছে যে, পিতলের তৈরি প্লেট, গ্লাস ইত্যাদি ব্যবহার করা নিষেধ।
এটি আসলে একটি অমূলক ধারণা। তাদের এ ধারণা ঠিক নয়। স্বর্ণ-রূপার পাত্র ব্যবহার করা নিষেধ কিন্তু কাঁসা এবং পিতলের প্লেট, গ্লাস বা যে কোনও পাত্র ব্যবহার করতে কোনও অসুবিধা নেই।

সুতরাং ইসলামের দৃষ্টিতে পানাহারের ক্ষেত্রে স্বর্ণ ও রৌপ্য ছাড়া অন্য যে কোন ধাতব পদার্থ দ্বারা তৈরি বাটি, প্লেট, হাঁড়ি-পাতিল, গ্লাস, চামচ ইত্যাদি ব্যবহার করা জায়েজ ইনশাআল্লাহ। আল্লাহু আলাম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here