বিষয়ঃঃ- শবেবারাতের ফাজিলত*

0
23
views

*শবেবারাতের ফাজিলত*

হযরত আম্মার বিন ইয়াসসার রদীয়াল্লাহুআনহু, বলেন যে নবী পাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন যে ব্যাক্তি শবেবারাতের রাতে ৬ই রাকাআাত নফল নামাজ পড়বে, তার সারা জিবনের সমস্ত গুনাহ মাফ হয়ে যাবে।
(তাবরানি)ও আনোয়ারুল বায়ান ২য় খন্ড ৫২৫পৃঃ)
হযরত আবু হোরাইরা রদীয়াল্লাহুআনহু বলেন যে ১৫ই শাআবান, মাগরীবের পর ৬ই রাকাআত নামাজ পড়বে, এবং তার পর কনো খারাপ কথা বলবেনা, তাকে আল্লাহ তাআলা ১২বছর এবাদতের সাওয়া দান করবেন।( *তিরমিজী শরীফ ১ম খন্ড ১৯৮পৃঃ*

হযরত মুআজ বিন জাবাল রদীয়াল্লাহুআনহু বলেন যে ব্যাক্তি শবেবারাতের রাত জেগে, সারা রাত এবাদত করিবে তার জন্য জান্নাত ওয়াজিব হয়ে যাবে।
(*আততারগীব *অততারহীব ২য় খন্ড ৯৮পৃঃ ও বাহারে শারীয়াত ৪থ খন্ড ১০৫পৃঃ*

নবী পাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন যে ব্যাক্তি শবেবারাতের রাতে এবাদত করিবে এবং দিনে রোযা রাখিবে, তার জন্য জান্নাত হালাল হয়ে যাবে।
(বাহারে শারীয়াত ৫ খন্ডে)

অতএব এই রাতে বেশি বেশি নফল নামাজ পড়ুন, কোরআন তিলাওয়াত করুন, তৌবা করুন,কবর জিয়ারত করুন, এবাদত বান্দেগির মাধ্যমে কাটাবার চেষ্টা করুন।

বিঃ দ্রঃ শবেবরাত সম্পর্কে আরো বিশেষ কিছু জানতে এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন 9734870091,,,

দুআ প্রার্থী, H.Q.M জিয়াউল মোস্তফা নূরী রেজবী,
সাগরদিঘি মুর্শিদাবাদ,,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here