শরীয়তের দৃষ্টিতে ঈদের দিন কয়দিন?

0
4
views

শরীয়তের দৃষ্টিতে ঈদের দিন কয়দিন?
মিশকাত শরীফ 121 পৃষ্ঠায় হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদ্বীয়াল্লাহু তা’আলা আনহু হতে বর্ণিত হয়েছে যে তিনি বলেন “আল্ইয়াওমা আকমালতু লাকুম দিনাকুম” এই আয়াত যেদিন অবতীর্ণ হয় সেই দিন দুটি খুশির 🎉দিন ছিল। একটি শুক্রবার এর দিন আরেকটি আরাফার দিন। ঈদ, বকরাঈদ এর দিন ব্যতিরেকে হাদীস শরীফে শুক্রবার ও আরাফার দিন কেও ঈদের দিন বলা হয়েছে। তাহলে বুঝা গেল যে ঈদ ,বকরাঈদের দিনই শুধুমাত্র খুশির দিন নয়। পবিত্র হাদীস ও বুযুর্গানে দ্বীনের উক্তি হতে পরিষ্কারভাবে প্রমাণিত হয় যে ইসলামে কেবলমাত্র ঈদ বকরা ঈদের দিন খুশির দিন নয় বরং শুক্রবারের দিন আরাফার দিন এমনকি মহানবীর আগমনের দিনও খুশির দিন🎉 মাওয়াহিবুল লা দুন্নীয়া প্রথম খন্ড 145 পৃষ্ঠায় বলা হয়েছে যে নিশ্চয়ই মহানবীর আগমনের রাত্রি তিনটি কারণে শবে কদর অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ। আনওয়ারে মুহাম্মাদীয়া 28 পৃষ্ঠায় বর্ণিত হয়েছে যে মহানবী সাল্লাল্লাহু তা’য়ালা আলাইহি ওয়া সাল্লামের আগমনের রাত্রি শবে কদর অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ। হযরত ইমাম তাহাবী নকল করেছেন যে শবে কদর শ্রেষ্ঠ রাত্রি ,তারপর শবে মেরাজ, তারপর শবে আরফা, তারপর শবে জুমআ, তারপর শবে বরাত , তারপর ঈদের রাত্রি ,আর সমস্ত রাত্রির মধ্যে 🌺 সর্বশ্রেষ্ঠ রাত্রি মহানবী সাল্লাল্লাহু তা’য়ালা আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর আগমনের রাত্রি ।”জাওয়াহিরুল বিহার “তৃতীয় খন্ড 426 পৃষ্ঠা ।আর মহানবীর আগমনের তারিখে খুশি🎉🎊 প্রকাশ করতে স্বয়ং আল্লাহ তা’আলা কোরআন শরীফের 11 পারা সূরা ইউনুস এর মধ্যে নির্দেশ দিয়েছেন। ওহাবী দেওবন্দী, নামধারী আহলে হাদীস সালাফী গন মহানবীর আগমন দিবসে শরীয়ত মোতাবেক খুশি পালন করার বিরোধীতা করে থাকে দলীল ছাড়াই। নবী পাকের আগমনের দিন খুশি প্রকাশ করার বিরুদ্ধে আজ পর্যন্ত কোন নির্ভরযোগ্য কিতাব হতে একটিও দলীল দিতে পারেনি ক্বিয়ামত পর্যন্ত তাদের পক্ষে দলীল দেওয়া সম্ভব হবে না ।মহানবীর আগমন দিনে খুশি প্রকাশ করা জায়েয, মুস্তাহাব ,মুস্তাহাসান।

SunniDunia Tv ইউটুব চ্যানেল

সাবস্ক্রাইব করুন👇https://youtube.com/channel/UCqAGMoCRiVXcqc4Tpvk6LYw

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here